বাংলাদেশে রক্তের প্রয়োজন পড়লে সবার আগে কোথায় খোঁজ করবেন?

একবার আমার এক বন্ধুর মার অপারেশনের জন্যে ইমারজেন্সি রক্তের প্রয়োজন পড়েছিলো। ডাক্তার বলেছিল ব্লাড ব্যাংকের রক্ত না, সরাসরি কারও শরীর থেকে রক্তের ব্যবস্থা করার জন্যে। তো বেশ অনেক জায়গায় দৌড়াদৌড়ি করেও আমরা রক্তের ব্যবস্থা করতে পারছিলাম না। পরে অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে শেষমেশ রক্তদাতা পাওয়া গেল।

তবে সেই দিনের এই রক্ত খোঁজার অভিজ্ঞতা আমাকে বুঝিয়ে দিলো সময়বিশেষে রক্তের প্রয়োজনীয়তা। ওই সময়ের পর থেকে আমি নিয়মিত রক্ত দান করে আসছি। আর যে কারও রক্ত লাগলে চেষ্টা করছি যেন তার রক্তের ব্যবস্থা ঠিকঠাক ভাবে হয়ে যায়।

আমাদের দেশে রক্তের প্রয়োজন হলে সবাই প্রথমে চেষ্টা করে, আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধবের মধ্যে থেকে রক্তের ব্যবস্থা করতে। যদি এর মধ্যে ব্যবস্থা হয়ে যায় তাইলে তো হলোই, আর যদি না হয় তাহলে এই ব্লাডব্যাঙ্ক সেই ব্লাডব্যাঙ্ক এর দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়ে যায়। অবশেষে ব্যাপক ভোগান্তির পরে হয়তো রক্ত মেলে, হয়তো মেলে না।

কিন্তু বর্তমানে ইন্টারনেটের যুগে রক্ত ব্যবস্থা করাও বেশ সহজ হয়ে গিয়েছে। শুধু প্রয়োজন ইন্টারনেট এর আর একটি ওয়েবসাইট ঠিকানার। http://www.donatebloodbd.comএই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে খুব সহজেই আপনি আপনার প্রয়োজনীয় রক্তের সন্ধান করতে পারবেন। ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন। লোগোর ঠিক নিচে “DONOR LIST” নামের ড্রপডাউন মেন্যুতে ক্লিক করুন। এখন আপনি রক্তের গ্রুপের নামগুলো দেখতে পাবেন। আপনার যে গ্রুপের রক্তের প্রয়োজন, সেই গ্রুপের নামে ক্লিক করুন।

উদাহরণ হিসেবে আমরা বি পজিটিভ রক্তের গ্রুপ এ ক্লিক করলাম। এবার আপনার সামনে নিচের ছবির মতো অনেক রক্তদাতার কন্ট্যাক্ট নম্বর এবং তার লোকেশন ও সর্বশেষ রক্তদানের তারিখ দেখতে পাবেন। নূণ্যতম তিন মাস আগে রক্ত দিয়েছেন এমন রক্তদাতাদের ফোন করে জিজ্ঞেস করতে পারেন যে তারা রক্ত দান করতে পারবেন কিনা। এভাবে কয়েকজনকে ফোন করার মাধ্যমেই আশা করা যায়।

তবে একটি বিষয়, এখানে আপনি যে সকল রক্তদাতা পাবেন তাড়া কেউই টাকার বিনিময়ে আপনাকে রক্ত দিচ্ছেনা। তারা রক্ত দিচ্ছে, একদম নিস্বার্থভাবে এবং বিনা পয়সায়। তাই তাদের খাতিরযত্নের কমতি করবেন না, ভারী কিছু খাওয়ান না খাওয়ান অন্তত ভালো ফলের জুস খাওয়ানোর চেষ্টা করুন এবং আপনার সর্বোচ্চ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন। কারণ আপনার অতি আপনজনের গায়ে এই লোকেরই রক্ত প্রবাহিত হবে।

আর আপনি যদি মাদকাসক্ত না হন বা জটিল রোগে আক্রান্ত না থাকেন তাহলে এই ওয়েবসাইটে আপনি ডোনার লিস্টে আপনার নাম লিখিয়ে নিতে পারেন। কে যানে হয়তো আপনার দেয়া রক্তে বেঁচে যেতে পারে কোন মুমূর্ষু রোগীর প্রাণ !

Ariful Islam Palash
 

বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত। টুকটাক লেখালেখির পাশাপাশি বই পড়া, নতুন জিনিস জানার প্রতি ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে তার। ব্যবসার প্রতি মনের টান রয়েছে, ভবিষ্যতে দেশের অন্যতম একজন ব্যবসায়ী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চায় নিজেকে। প্রয়োজনে ফেসবুকে পলাশ এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। :)