ব্যবহারকারিকে সেরা ভিডিও এক্সপেরিয়েন্স দিতে কুইকফায়ার নেটওয়ার্কস কিনে নিলো ফেসবুক

জানুয়ারি ৮, ২০১৫তে কুইকফায়ার নেটওয়ার্কসকে কিনে নিলো ফেসবুক । কুইকফায়ারের ওয়েবসাইটে[1] ঢুকলেই দেখা যাচ্ছে এর সিইও ক্রেইগ লির বার্তা, যাতে ফেসবুকের কিনে নেয়ার ব্যপারটি নিশ্চিত হওয়া গেছে। ব্যবহারকারী ভিডিও কোয়ালিটি একই রেখে যেন বাফারলেসভাবে অথবা কম বাফারে ভিডিও দেখতে পারে এবং আগের থেকে তুলনামূলক কম সময়ে ভিডিও আপলোড করতে পারে সেই লক্ষ্যে কুইকফায়ারকে কিনল ফেসবুক।

কুইকফায়ার ভিডিওর সাইজ কমানোর জন্যে এবং আপলোড করার সময় কমানোর উদ্দেশ্যে কাস্টম হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করছে। আর সেই টেকনিকাল সুবিধা নিয়ে ব্যবহারকারিদের সেরা ভিডিও এক্সপেরিয়েন্স দেয়ার জন্যেই ফেসবুক কুইকফায়ারকে কেনার উদ্যোগ নিয়েছে।

ফেসবুকে প্রতিদিন গড়ে একশো কোটিরও বেশি ভিডিও দেখা হয়। অর্থাৎ ভিডিও শেয়ারিং সাইট হিসেবেও ফেসবুক অনেক এগিয়ে যাচ্ছে। যেহেতু এতো বেশি মানুষ ভিডিও দেখছে, তাই তাদেরকে ভালো এক্সপেরিয়েন্স দিতে পারলে ভিডিও শেয়ারিং সাইট হিসেবেও ফেসবুক কয়েকধাপ এগিয়ে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।কুইকফায়ার ভিডিওর সাইজ কমানোর জন্যে এবং আপলোড করার সময় কমানোর উদ্দেশ্যে কাস্টম হার্ডওয়্যার এবং সফটওয়্যার প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করছে। আর সেই টেকনিকাল সুবিধা নিয়ে ব্যবহারকারিদের সেরা ভিডিও এক্সপেরিয়েন্স দেয়ার জন্যেই ফেসবুক কুইকফায়ারকে কেনার উদ্যোগ নিয়েছে।

Ariful Islam Palash
 

বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত। টুকটাক লেখালেখির পাশাপাশি বই পড়া, নতুন জিনিস জানার প্রতি ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে তার। ব্যবসার প্রতি মনের টান রয়েছে, ভবিষ্যতে দেশের অন্যতম একজন ব্যবসায়ী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চায় নিজেকে। প্রয়োজনে ফেসবুকে পলাশ এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। :)